1. admin@agrajatrabd.news : admin :
বিজ্ঞপ্তিঃ-
জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে যোগাযোগ ০১৩ ০৯ ৩২ ৩২ ৮১
শিরোনাম
সিলেট এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ডিএনএ রিপোর্টে সংশ্লিষ্টতা মিলেছে আসামিদের ছাতকে ভুয়া ইউএনও সেজে চলছে প্রতারণা বঙ্গবন্ধু কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ পরিষদ বাংলাদেশ এর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন শারীরিক প্রতিবন্ধী শিশুকে হুইল চেয়ার প্রদান করলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম জমি দখলের ঘটনায় নিহত চকরিয়া উপজেলার সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সোহেল রংপুরে ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির ক্যামেরা পারসনের ওপর হামলার প্রতিবাদে সাংবাদিকদের অবস্থান ধর্মঘট বসত বাড়ি তল্লাশী করে ৮৫ ভরি স্বর্ণসহ মোটর সাইকেল ও মিয়ানমার টাকা উদ্ধার টেকনাফে। ‘ফেসবুক’হতে পারে জনসম্পৃক্ততার একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম- পুলিশ সুপার, নোয়াখালী রংপুরে জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ’র মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

সাতক্ষীরার আশাশুনিতে ডলার,মাদক ও চিংড়ী মাছে ওজন পুশকারিরা বেপরোয়া

  • Update Time : শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৬১ বার পড়া হয়েছে

ফরহাদ হোসেন ও মাহফুজুর রহমানঃ

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নে ডলার সিন্ডিকেট বেপরোয়া হয়ে চালাচ্ছে তাদের ডলার ব্যবসা। একটি সংঘবদ্ধ চক্র মহিষাডাঙ্গা বাজারে মাছের আড়ৎ ব্যবসার আড়ালে এলাকার মানুষদের
সাথে প্রতারনা করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
প্রাপ্ত তথ্যমতে কুল্যা ইউপির মহাজনপুর গ্রামের ইদ্রিস আলির পুত্র রহমত আলি, জাহাবকসের পুত্র রেজাউল ইসলাম,মুজিবর রহমানের পুত্র ইয়াছিন আলি রফিকুল ইসলামের পুত্র সম্রাট,শুকুর আলি সরদারের পুত্র আঃ মজিদ, ও ছিয়ামুদ্দীনের পুত্র আবু মুছা এই ডলার সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত। এদের মূল লীডার রহমত আলি মহিষাডাঙ্গা বাজারে মাছের আড়ত ব্যবসার আড়ালে ডলার, ভারতীয় রুপি দেওয়ার নামে কৌশলে প্রতি ডলার, রুপির বান্ডিলে উপরে ও নীচে দুটি ভাল নোট দিয়ে ভিতরে সাদা কাগজ দিয়ে বড় অংকের টাকা লেনদেন করে থাকে। এ প্রতারনা অভিনব কৌশলে তারা সেরে থাকে। তাছাড়া এ চক্রটি গাঁজাসহ বিভিন্ন মাদক ব্যবসার সাথেও জড়িত।
এসব মাছের আড়ৎদারদের নিকট হতে সঞ্জয়,রেজাউল,জগদীশ নামে এলাকার চিহৃিত মানুষগুলো চিংড়ী মাছ ক্রয় করে তাতে ভারবাহী সাবু,পানি জাতীয় পুশ করে মাছের ওজন বৃদ্ধি করে থাকে।
এদের বিরুদ্ধে কেউ উচ্চ বাচ্য করতে পারেনা, এদের নাকি হাত লম্বা। পুলিশ প্রশাসনসহ এলাকার জনপ্রতিনিধের ম্যানেজ করে তারা এসব অবৈধ ব্যবসা করে থাকে। এলাকার মানুষ এদের এসব অনৈতিক কর্মকান্ডে খবর জেনেও মুখ খোলার সাহস পায় না। এই সংঘবদ্ধ চক্রটি বিগত কয়েক বছর ধরে এসব ডলার প্রতারনা, মাদক ব্যবসা করলেও আইনপ্রয়োগকারি সংস্থা জানলেও বা না জানলেও তারা ধরা ছোয়ার বাইরে থাকে।
এলাকার মানুষ এদের হাত থেকে সামাজিক পরিচ্ছন্নতা ফিরিয়ে আনতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৪৬২,৪০৭
সুস্থ
৩৭৮,১৭২
মৃত্যু
৬,৬০৯
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
১,৭৮৮
সুস্থ
২,২৮৭
মৃত্যু
২৯
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব