1. admin@agrajatrabd.news : admin :
বিজ্ঞপ্তিঃ-
জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে যোগাযোগ ০১৩ ০৯ ৩২ ৩২ ৮১
শিরোনাম
স্বপ্ন ও বাস্তবের মাঝে বাকি শুধু একটি স্প‍্যান টাঙ্গাইল জমে উঠেছে ফুটপাতের শীতের কাপড়ের দোকান শ্রীমঙ্গলে স্কুল পড়ুয়া ছাত্রকে বলাৎকারের চেষ্টা: মামলা নেয় নি শ্রীমঙ্গল থানার ওসি ! ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও মুক্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন বাসাইল উপজেলার বাথুলী সাদী হাট-বাজার প্রকল্পে চারতলা ভিত ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেন দামুড়হুদা প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন সভাপতি এম,নুরুন্নবী সাধারণ সম্পাদক বখতিয়ার হোসেন বকুল ঝিনাইদহে ফেন্সিডিল মাদক ব্যবসায়ী আটক দামুড়হুদা প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন সভাপতি এম,নুরুন্নবী সাধারণ সম্পাদক বখতিয়ার হোসেন বকুল গাজীপুরে শেখ ফজলুল হক মনির ৮১তম জন্মদিন পালিত ৪ ডিসেম্বর ১৯৭১; যুদ্ধে পর্যুদস্ত পাকিস্তানের জাতিসংঘে দৌড়ঝাঁপ

মাদক বিরোধী অভিযান চালাতে হয়রানির শিকার বোয়ালিয়া থানার এসআই উত্তম

  • Update Time : মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮৪ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহী প্রতিনিধি : শিবলী সরকার (নবু) বর্তমান সারাদেশে চলছে একটি বড় সমস্যা, মাদক সমস্যা। এ সমস্যা সমাধানের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর আগে জাতীয় একাদশ সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ, শিশু ধর্ষণকারী মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা দিয়েছিলেন। তারপর থেকে শুরু হয় বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর অগ্রযাত্রায় চলো যায় যুদ্ধ মাদকের বিরুদ্ধে এই স্লোগানকে সামনে রেখে দেশজুড়ে চলতে থাকে র‍্যাব-পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযান। এরপর থাকে মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ বাহিনীর অভিযান শুরু হয়। আর এরই ধারাবাহিকতায় রাজশাহী মহানগর বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশের কিছু চৌকস অফিসারগণ, মহানগরীর এলাকার কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে দিনরাত ২৪ ঘন্টা অভিযানের কার্যক্রম সর্বদাই চালিয়ে যাচ্ছেন। এসব অফিসারদের আরএমপির পুলিশের ঝুড়িতে রয়েছে অনেক সফলতার গল্প। আছে তাদের সম্মানিত পুরষ্কার। এই গল্পের মধ্যে একজন নির্ভীক সাহসী পুলিশ অফিসার বোয়ালিয়া মডেল থানার এসআই উত্তম। তিনি, রাজশাহী মেট্রোপলিটন আরএমপিতে এই যাবত ১২তম শ্রেষ্ঠ অফিসার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি একাধিক বার আরএমপিতে পুলিশের সন্মানিত পুরষ্কার প্রাপ্য হোন। এই কারণে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশের ঝুড়িতে আছে তার। আরও মাদক উদ্ধারের বড় বড় সফলতার অর্জনে প্রশংসায় ভাসছে বোয়ালিয়া মডেল থানার এসআই উত্তম। দৈনিক জাতীয় অগ্রযাত্রা পত্রিকা প্রতিবেদক বিষয়টি অনুসন্ধান চালিয়ে জানতে পারে রাজশাহী মহানগর ঘিরে বোয়ালিয়া থানার পুলিশ অফিসার এসআই উত্তমকে নিয়ে আতংকে থাকেন। নগরীর বেশি ভাগ অংশেই মাদকসেবী ও মাদক ব্যবসায়ী মহল।

এদিকে মাদক সিন্ডিকেট মাদক ব্যবসায়ীরা বোয়ালিয়া মডেল থানার চৌকস অফিসার এসআই উত্তমকে রাজশাহী থেকে হঠাতে, পেছনে আজও মরিয়া হয়ে লেগে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মিথ্যা অপ্রচারে লিপ্ত হচ্ছেন। নগরীর চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের একটি দল। এসব মাদক বহনকারীদের চাপের মুখে, বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। সম্প্রতি দেখা যায়, মাদক ব্যবসায়ীদের পক্ষ-বিপক্ষ নিয়ে সমালোচিত হচ্ছেন তিনি। তবে, সমালোচনা হোক আর আলোচনাই হোক, জীবনকে বাজি রেখে রাজশাহীতে যতদিন থাকবো মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করে যাবো। বলেও এসআই উত্তম জানান। এবিষয়ে আরও বলেন, বোয়ালিয়া মডেল থানাধীন এলাকায় প্রতীয়মান যে কাজ করবে। তার দোষ ত্রুটিও থাকাটাও স্বাভাবিক। দশটি কাজের মধ্যে একটি কাজের আলোচনা ও সমালোচনা হবেই, এটাই স্বাভাবিক। থানা এলাকায় মাদক নির্মুলে বদ্ধপরিকর বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন। জানান রাজশাহী মেট্রোপলিটন আরএমপির পুলিশের নবনিযুক্ত পুলিশ কমিশনার মহোদয়। মো আবু কালাম সিদ্দিক এর নির্দেশনায় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা দেন। পুলিশ, হোক, আর যেই হোক না কেনো মাদকের সাথে সম্পৃক্ত থাকলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর এরই ধারাবাহিকতায় মহানগরীতে নিয়মিত চলতে থাকবে মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান। আসতে শুরু হয়েছে বোয়ালিয়া মডেল থানার সফলতাও। এর মধ্যেই একটি মাদকচক্র মহল সিন্ডিকেট অপশক্তির দল বোয়ালিয়া মডেল থানার সুনাম ক্ষুন্ন করতে সমালোচনা চালাতে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছেন। যার ধারাবাহিকতায় এসআই উত্তমের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী’রা কতৃক মিথ্যা অভিযোগ তুলছেন। এধরনের মিথ্যা অভিযোগটি তুলেছেন নগরীর শহীদ মিনার এলাকার গোলাম মোস্তাফার ছেলে চিহ্নিত হেরোইন সেবী ও কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ফয়সাল ওরফে তুষার ।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে ওই এলাকার ফয়সাল ওরফে তুষারের বিরুদ্ধে বোয়ালিয়া থানায় ৫টি মামলা রয়েছে। যার অন্যান্য মামলাগুলো তুষারকে দিয়েছেন থানার অন্য অফিসার। তাকে এই মামলা দেওয়াকে কেন্দ্র করে নানা ধরনের মিথ্যা অভিযোগের তীর ছোড়া হয়েছে এসআই উত্তমের উপর। অভিযোগগুলোর বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি এসআই উত্তম। তবে, তিনি বলেন, একজন মাদক ব্যবসায়ীকে মাদকসহ পেয়েছি মামলা দিয়েছি। এখানে আমার বলা, বা করার কিছুই নেই। আর যাকে মামলা দেওয়া হয়, তার কাছে উৎকোচন চাওয়ার প্রশ্নই জাগে না। মামলা দিলে কেউ উৎকোচন দিবে না। বোয়ালিয়া থানায় আমি কর্মরত থাকাকালীল কারো কাছে মাদক পেলে কোনধরনের ছাড় দেয়া হবে না। সে যেই হোক শুধু মাদকের ক্ষেত্রে ছাড় দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

এদিকে বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারন চন্দ্র বর্মন এর কাছে মাদক ব্যবসায়ী ফয়সাল ওরফে তুষারের বিষয়টি জানতে চাইলে ওসি জানান- তুষার একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক বহনকারী। তার নামে বোয়ালিয়া থানায় দেয়া প্রায় ৫ টি মাদক মামলা রয়েছে। সে একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী এবিষয়ে বিন্দু মাত্র সন্দেহ নেই। মাদক ব্যবসায়ীদের দেয়া অভিযোগের ভিত্তিতে কোন তদন্ত হবে কিনা, এমন প্রশ্নে রাজশাহী মেট্রোপলিটন আরএমপি পুলিশের মুখপাত্র এডিসি রুহুল কুদ্দুস বলেন- অবশ্যই তদন্ত হবে। তবে, শুধুমাত্র উদ্দোশ্য প্রণোদিতভাবে। কাউকে হয়রানির উদ্দোশ্যে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হলে। মিথ্যা অভিযুক্ত কারীদেরও বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি, আরও বলেন আমাদের পুলিশ সদস্য যদি কোন অনিয়ম করেন। তাহলে তাকেও ছাড় দেয়া হবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৪৭৩,৯৯১
সুস্থ
৩৯০,৯৫১
মৃত্যু
৬,৭৭২
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
২,২৫২
সুস্থ
২,৫৭২
মৃত্যু
২৪
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব