1. admin@agrajatrabd.news : admin :
বিজ্ঞপ্তিঃ-
জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে যোগাযোগ ০১৩ ০৯ ৩২ ৩২ ৮১
শিরোনাম
চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গায় নিখোঁজ যুবকের কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনায় এক দম্পতি গ্রেফতার অসহায় ৫ বোনকে কুপিয়ে আহত করার প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করল র‍্যাব-৮ ৫ ডিসেম্বর ১৯৭১; ঢাকার আকাশ মিত্রবাহিনীর দখলে একাত্তরের এই দিনে বিজয়ের মাস উপলক্ষে-ডিআইজি- আনোয়ারের ধারাবাহিক-কলাম সোনাগাজীতে বিধবা মহিলার ধান কেটে দিলো স্বেচ্ছাসেবকলীগ স্বপ্ন ও বাস্তবের মাঝে বাকি শুধু একটি স্প‍্যান টাঙ্গাইল জমে উঠেছে ফুটপাতের শীতের কাপড়ের দোকান শ্রীমঙ্গলে স্কুল পড়ুয়া ছাত্রকে বলাৎকারের চেষ্টা: মামলা নেয় নি শ্রীমঙ্গল থানার ওসি ! ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও মুক্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন বাসাইল উপজেলার বাথুলী সাদী হাট-বাজার প্রকল্পে চারতলা ভিত ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেন

জামালপুর সদর উপজেলা প্রশাসনের জলাশয় মুক্ত অভিযান

  • Update Time : বুধবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮১ বার পড়া হয়েছে

নবী-মাহমুদ:

দীর্ঘ কয়েকদিনের ভারী বর্ষণের কারনে সদর উপজেলার কয়েকশত একর জমি তলিয়ে গেছে। পানি বের হয়ে যাওয়ার জন্য যে কয়েকটি খাল রয়েছে সেটাও দখল করে নিয়েছে মৎস শিকারীরা। খালের মাঝে জাল ও বাঁধ দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ মাছ শিকার করে আসছে। যার কারনে খালের পানি নিষ্কাশন হতে বাধাগ্রস্থ হয়ে পড়েছে।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে কৃষকের কথা চিন্তা করে জলাশয় মুক্ত করার অভিযানে নামে সদর উপজেলা প্রশাসন। জামালপুর সদর উপজেলার শাহবাজপুর ও দিগপাইত ইউনিয়নের প্রায় ১০-১২টি বাঁধ ভেঙ্গে দেয় উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ।

বুধবার সকালে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিনের নেতৃত্বে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা বেগম, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সলেমুজ্জামান, নারায়নপুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আব্দুল লতিফ মিয়া সহ শাহবাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান আয়ূব আলী খান, দিগপাইত ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, কেন্দুয়া ইউপি সদস্য মোঃ মোতালেব হোসেন, আমিনুল ইসলাম স্বপন, সমাজ সেবক খোরশেদ আলমের উপস্থিতিতে এ সকল বাঁধ ভেঙ্গে জলাশয় মুক্ত করেন।

শাহবাজপুর ইউনিয়নের ভূমি অফিস সংলগ্ন প্রায় ৪টি বাঁধের কারনে বিপদগ্রস্থ হয়ে পড়েছিলেন কেন্দুয়া ও শাহবাজপুর ইউনিয়নের কয়েক’শ কৃষক। তারা বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি দ্রæত জলাশয় মুক্ত করার জন্য অভিযানে নামেন। অভিযানে নেমে তিনি উপস্থিত থেকে প্রতিটি বাঁধ খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। সেই সাথে পুনরায় কেউ যেন বাঁধ দিতে না পারে সেইজন্য সকলকে সতর্ক করেন। এছাড়া দিগপাইত ইউনিয়নের মোহনপুর গ্রামে জলাশয়ে বাধঁ দিয়ে মাছ চাষ করে আসছিল কয়েকজন ব্যক্তি।

গতকাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা বেগম, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সলেমুজ্জামান, দিগপাইত ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান উপস্থিত থেকে বাঁধ খুলে দেন। সেই সাথে দিগপাইত ইউনিয়নের পূর্বপাড় দিঘুলী গ্রামের কয়েকটি জলাশয়ের বাঁধ খুলে দেন উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিন বলেন, কেউ জলাশয়ে বাঁধ দিয়ে পানি প্রবাহে বাঁধা সৃষ্টি করতে পারবে না। এ ধরনের অপরাধ কেউ করলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা বেগম বলেন, সকল জলাশয় মুক্ত রাখার জন্য আমরা সবসময় কাজ করে যাচ্ছি। যদি কেউ জলাশয়ে বাঁধ দিয়ে পানি প্রবাহে বাঁধা সৃষ্টি করে তাহলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৪৭৫,৮৭৯
সুস্থ
৩৯৩,৪০৮
মৃত্যু
৬,৮০৭
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
১,৮৮৮
সুস্থ
২,৪৫৭
মৃত্যু
৩৫
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব