1. admin@agrajatrabd.news : admin :
বিজ্ঞপ্তিঃ-
জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে যোগাযোগ ০১৩ ০৯ ৩২ ৩২ ৮১
শিরোনাম
বেগমগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের অভিযানে কুখ্যাত রয়েল গ্রুপের সেকেন্ড ইন কমান্ড অস্ত্রসহ গ্রেফতার বসুরহাট পৌরসভা আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জার সমর্থনে ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতঃ বেগমগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের অভিযানে কুখ্যাত রয়েল গ্রুপের সেকেন্ড ইন কমান্ড অস্ত্রসহ গ্রেফতার সেচ্ছায় রক্ত দানে ‘লিল্লাহিয়াত ব্লাড ডোনেশন চাঁদপুর’ এর শুভ উদ্বোধন ছেলে এবং বউদের অবহেলায় বিষপানে মায়ের আত্মহত্যা রাজাপুর জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ মৌলভীবাজারে মাস্ক পরিধান নিশ্চিতে দেড় শতাধিক ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে অর্থদণ্ড ইতিবাচক কাজে লালমোহন থানার ওসি মাকসুদুর রহমান মুরাদ সিলেটে র‌্যাব-৯ এর বিশেষ অভিযানে ভুয়া পাসপোর্ট ও ভিসাধারী দুই নাইজেরিয়ান আটক পাথরঘাটায় ডিবির হাতে ৯ ডাকাত আটক

ডেসটিনি ধ্বংসচেষ্টার কুশীলব এবং স্বপ্ন চুরির সাতকাহন- মোঃবোরহান উদ্দিন

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই, ২০২০
  • ১০৭ বার পড়া হয়েছে

মোঃআজিজুর রহমান- জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী।

লক্ষ্য করবেন, ডেসটিনি গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রফিকুল আমীন সচরাচর তার প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামের শুরুটাই কইরা থাকেন `Don’t let anybody steal your dream’ অর্থাৎ ‘কারো দ্বারা আপনার স্বপ্ন চুরি হতে দেবেন না’ এই বাক্য দিয়া। অপ্রিয় হইলেও সত্য যে, গত আট বছরে ডেসটিনির এই দূর্যোগে ৪৫ লাখ ক্রেতা পরিবেশকের এই স্বপ্নটাই কিন্তু চুরি হইয়া গ্যাছে। সামান্যই আছেন, যাদের স্বপ্ন এখনও চুরি হয় নাই। এরা কারা? ধৈর্য্য ও মনোবল নিয়া যারা এখনো ডেসটিনির সাথে সম্পৃক্ত আছেন তারা।

ডেসটিনি ধ্বংসচেষ্টার কুশীলবরা গত আট বছরে ডেসটিনির কি কি ক্ষতি করতে পারছে সেইটা কি একবার ভাবছেন? বলতেছি শোনেন, তারা শুধু একটা ক্ষতি করতে পারছে, ডেসটিনি সংশ্লিষ্টদের স্বপ্নটা শুধু চুরি করতে পারছে। এইটা ছাড়া তারা ডেসটিনির আর কোনো ক্ষতি করতে পারে নাই।

কয়েকটা প্রশ্নের উত্তর জানলেই বিষয়টা বুঝতে পারবেন-

প্রশ্ন ০১-
ডেসটিনির শীর্ষ কর্মকর্তারা কি দেশ ছাইড়া পালায়া গ্যাছেন? না, যান নাই। আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখাইয়া আত্মসমর্পণ করার পর দীর্ঘ আট বছর ধইরা উনারা কারাবন্দি আছেন। বরং, আইনি প্রক্রিয়ায় কারামুক্ত হইয়া কিভাবে ডেসটিনির ব্যবসা পুনরায় চালু করা যায় সেইজন্য তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা করতেছেন। অর্থাৎ, মালিকপক্ষের অনুপস্থিতিজনিত কোনো সমস্যা ডেসটিনির নাই।

প্রশ্ন ০২-
ডেসটিনির সম্পত্তিগুলা আছে না বেদখল হইয়া গ্যাছে? আছে, বেদখল হয় নাই, পুলিশের হেফাজতে আছে। কিছু সম্পত্তি বেহাত হওয়ার খবর পাওয়া গেলেও তাতে আশংকার কিছু নাই, মামলা নিষ্পত্তি হইলে দখল-বেদখল সব সম্পত্তিই ফেরত পাওয়া যাবে। সুতরাং, বিনিয়োগের টাকা নিয়াও টেনশনের কিছু নাই।

প্রশ্ন ০৩-
ডেসটিনির জব্দকৃত ব্যাংক এ্যাকাউন্টগুলায় যেই পরিমাণ টাকা আছে সেইগুলা কি খরচ হইয়া গ্যাছে? না, খরচ হয় নাই, জাস্ট এ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করা আছে। মামলা নিষ্পত্তি হইলে এ্যাকাউন্টগুলার সব টাকাই ডেসটিনি ফেরত পাবে। তারমানে, ব্যাংকে জমা থাকা টাকা নিয়াও চিন্তার কিছু নাই।

প্রশ্ন ০৪-
ডেসটিনির ক্রেতা পরিবেশক হিসাবে যার যেই বিজনেস পজিশন ছিলো সেইটা কি শূন্যতে আইসা পড়ছে? না, পজিশন আগের জায়গাতেই আছে, জাস্ট ব্যবসায়িক কার্যক্রম স্থগিত আছে। পুনরায় ব্যবসা চালু হইলে পরে সবাই আগের বিজনেস পজিশন থিকাই কাজ শুরু করবেন, জিরো থিকা শুরু করা লাগবে না। অর্থাৎ, বিজনেস পজিশন নিয়াও কারো টেনশনের কিছু নাই।

প্রশ্ন ০৫-
ডেসটিনির ক্রেতা পরিবেশক সংখ্যা কি কইম্যা গ্যাছে? কমে নাই, ৪৫ লাখই আছে। জাস্ট নতুন কইরা কেউ এই ব্যবসায় আপাতত সম্পৃক্ত হইতে পারতেছে না। পুনরায় ব্যবসা চালু হইলে কিন্তু ৪৫ লাখ থিকাই নতুনদের কাউন্ট করা হবে। সুতরাং, জনবল সংকটের আশংকাও নাই।

প্রশ্ন ০৬-
ডেসটিনির যে স্থাপনাগুলা নির্মাণাধীন ছিলো সেইগুলা কি ধ্বংস হইয়া গ্যাছে? না, ধ্বংস হয় নাই। নির্মাণাধীন ভবনগুলার স্থাপনাশৈলী কমবেশি ক্ষতিগ্রস্থ হইলেও সবগুলা স্থাপনাই আছে, জাস্ট পুলিশি হেফাজতে আছে। আইনি প্রক্রিয়ায় সমাধান হওনের পরে স্থাপনাগুলার নির্মাণ কাজ আবার ঐখান থিকাই শুরু হবে। ফলে, এইখানে নির্মাণাধীন স্থাপনা নিয়াও চিন্তার কিছু নাই।

প্রশ্ন ০৭-
ডেসটিনি গ্রুপের ৩৭টি অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের সবগুলাই কি বিলুপ্ত হইয়া গ্যাছে? না, বিলুপ্ত হয় নাই, সবগুলাই আছে। মামলাজনিত সমস্যার সমাধান হইলেই সবগুলা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম আবার শুরু হইয়া যাবে। বৈশাখি টিভি আর দৈনিক ডেসটিনির কার্যক্রম তো অলরেডি চলমান আছেই। অর্থাৎ, অঙ্গ প্রতিষ্ঠানগুলা নিয়াও কোনো সমস্যা নাই।

তাইলে ডেসটিনির সমস্যা কোন জায়গায়?

সমস্যা ঐ এক জায়গায়, ক্রেতা পরিবেশকদের স্বপ্নটা শুধু চুরি হইয়া গ্যাছে, যেই বিষয়টা মোহাম্মদ রফিকুল আমীন বারবার তার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সবাইরে সতর্ক কইরা আসছেন। এইবার নিজে নিজে হিসাব কইরা দ্যাখেন কার কার স্বপ্ন আছে আর কার কারটা চুরি হইয়া গ্যাছে? সমস্যা কিন্তু ঐ একটা জায়গায়, বুঝতে পারছেন ভায়া?

তাইলে এখন করণীয় কি?

ভেরি সিম্পল, যে যেই কাজই করতেছেন করেন, কোনো সমস্যা নাই। পাশাপাশি ডেসটিনির সাথে যেমনেই হোক সম্পৃক্ত থাকেন। শ্রম দিয়া হোক আর সময়, মেধা দিয়া হোক আর অর্থ, মূলকথা হইলো ডেসটিনির সাথেই থাকেন। ৪৫ লাখ লোকের বিনিয়োগের নিরাপত্তার কথা চিন্তা কইরা যারা সুযোগ থাকা সত্ত্বেও আপনেরে ছাইড়া পালায়া যান নাই আপনেও তাদের ছাইড়া যাইয়েন না, সামর্থ্যানুসারে যতটুকু পারেন থাকেন।

কারো দ্বারা আপনের স্বপ্ন চুরি হইতে দিয়েন না। মনে রাইখেন, এইটার মধ্যেই কিন্তু স্রষ্টা ডেসটিনি সমস্যার সমাধান নিহিত কইরা রাখছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৪৫০,৬৪৩
সুস্থ
৩৬৪,৯১৬
মৃত্যু
৬,৪২০
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
২,২৩০
সুস্থ
২,২২৬
মৃত্যু
৩২
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব