1. admin@agrajatrabd.news : admin :
বিজ্ঞপ্তিঃ-
জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে যোগাযোগ ০১৩ ০৯ ৩২ ৩২ ৮১
শিরোনাম
বেলাবতে জমিতে পানি দিতে গিয়ে বিদ্যুৎ স্পষ্ট হয়ে ১ বৃদ্ধের মৃত্যু দাকোপে অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যাংক ও হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলা স্থাপন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন রাজাপুরে ৩ সন্তানের জনক ব্যবসায়ীকে হত্যার ঘটনায় মামলা গ্রেফতার ২ বাধ নির্মান করা হলো বাকেরগঞ্জের রঙ্গশ্রী ও নিয়ামতি ইউনিয়নের সোনাইমুড়ী নিখোঁজের ১ দিন পর স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার “মোহাম্মদ আলী কলেজ” এর অবকাঠামো নির্মাণ উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়ার অনুষ্ঠান। অনলাইন শিক্ষা বনাম ভালো ফলাফল সিলেট এমসি কলেজে গৃহবধূকে গনধর্ষণ: পুলিশ চার্জশিট দিতে পারেনি দুই মাসেও !  ধান কাটতে বাঁধা দেয়ায় দেশীয় অস্ত্রের কোপে একজন নিহত দক্ষিণ রণিখাইয়ে সাধারণ জনগনের মাদক বিরোধী অভিযান

কম মাত্রার স্টেরয়েড ডেক্সামেথাসোন’ করোনায় সুস্পষ্ট প্রমানিত প্রথম ওষুধ জাতিসঙ্ঘ বিশেষজ্ঞ দল

  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ জুন, ২০২০
  • ১৭২ বার পড়া হয়েছে

রিপোর্ট ঃ আসমাউল হুসনা

জাতিসঙ্ঘ বিশেসজ্ঞ দের মতে ডেক্সামেথাসোন নামে কম মাত্রার স্টেরয়েডকরোনা চিকিতসায় কাজ করেছে , এটি প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের ক্ষেত্রে জীবন রক্ষাকারী প্রথম ওষুধ বলে মানছেন তারা যা ব্যাবহার করে ভেন্টিলেটরে থাকা রোগীদের মৃত্যু ঝুকি প্রায় এক তৃতীয়াংশ কএবঙ্ অ ক্সিজেন ব্যাবহার কারী রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি প্রায় এক পঞ্চমাংশ কমিয়ে আনা সম্ভব বলে মন্তব্য তাদের।
গবেষক দলের মতে করোনা ভাইরাসে প্রতি ২০ জনে ১৯ জনই সুস্থ হয়ে ওঠে। খুব কম রোগীর কৃত্রিম শ্বাস প্রশ্বাস চালানোর দরকার হয় যেখানে উচ্চ ঝুঁকির এই রোগীদের ডেক্সিমেথাসোন ভালো কাজ করবে বলে মনে করা হচ্ছে। বৃতেন অক্সফোর্ড বিশবিদ্যালয়ের
গবেষক গণ তাদের তত্তাবধানে প্রায় দুই হাজার হাসপাতালে ডেক্সামেথাসোন দিয়ে রোগীদের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখেন যাদের ওপর এই ডেক্সামেথাসোন ব্যাবহার করা হইয়েছিল ভেন্টিলেটরে ছিল এমন রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি ৪০ থেকে কমে ২৮ নেমে এসেছে ও অক্সিজেনে থাকা রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি কমে ২৫ থেকে ২০ এ চলে আসে। গবেষণা প্রধান মারটিন ল্যানড্রে এই ফলাফলের ভিত্তিতে বলেন দেখা গেছে ভেন্টিলেটরে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে এমন আটজনের মধ্যে এক জনের প্রাণ এই ওষুধে বাঁচানো সম্ভব।“ অনুসনধান দলের প্রধান অধ্যাপক পিটার হারবির ম তে এখনো পরজন্ত এটাই একমাত্র ওষুধ যা মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে পারে বলে দেখা যাচ্ছে এবং এই ওষুধ প্রয়োগে মৃত্যু ঝুঁকি উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে’’- এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি। তবে যাদের খুব হালকা উপসর্গ তাদের ক্ষেত্রে এটা কাজ করবেনা –তাই এঈ ওষুধ বাড়িতে কিনে জমা করতে নিষেধ করেছেন তারা।
এই ওষুধের সুস্পষ্ট সুস্পষ্ট সফল আছে। এই চিকিৎসায় ডেক্সামেথাসোন দশদিনের জ্ন্য দিতে হবে যার দাম পড়বে মাত্র পাঁচ পাউন্ড এবং বিশ্বের সব দেশেই তা পাওয়া যায়।“ল্যানড্রের মতে এখনি প্রয়োজন হলে রোগীদের এই ওষুধ হাসপাতালে শুরু করা উচিত এবং বৃটেনে মহামারী কালে যদি এই ওষুধ আগেই শুরু করা যেত তবে পাঁচ হাজার রোগীর প্রাণ বাঁচানো যেত বলে মনে করছেন গবেষক দল।
ডেক্সামেথাসোন এর আগেই আরো একটি ওষুধ রেমডিসিভির করোনা চিকিতসায় ব্যাবহার হয়ে আসছে যা এন্টিভাইরাল চিকিৎসায় ব্যবহার হয়। সেটি করোনা চিকিৎসায় ব্যাবহৃত হলেও আরেক ওষুধ হাইড্রোক্লোরোকুইন হার্টের ও অনান্য জীবন নাশক প্রতিক্রিইয়া দেখা দেয়ায় তা বাতিল করে দেয়া হয়। সুত্র বিবিসি .কম

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৪৫৯,২৭২
সুস্থ
৩৭৩,৯২৪
মৃত্যু
৬,৫৫২
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
১,৯০৮
সুস্থ
২,২০৯
মৃত্যু
৩৬
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব