1. admin@agrajatrabd.news : admin :
বিজ্ঞপ্তিঃ-
জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে যোগাযোগ ০১৩ ০৯ ৩২ ৩২ ৮১
শিরোনাম
চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গায় নিখোঁজ যুবকের কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনায় এক দম্পতি গ্রেফতার অসহায় ৫ বোনকে কুপিয়ে আহত করার প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করল র‍্যাব-৮ ৫ ডিসেম্বর ১৯৭১; ঢাকার আকাশ মিত্রবাহিনীর দখলে একাত্তরের এই দিনে বিজয়ের মাস উপলক্ষে-ডিআইজি- আনোয়ারের ধারাবাহিক-কলাম সোনাগাজীতে বিধবা মহিলার ধান কেটে দিলো স্বেচ্ছাসেবকলীগ স্বপ্ন ও বাস্তবের মাঝে বাকি শুধু একটি স্প‍্যান টাঙ্গাইল জমে উঠেছে ফুটপাতের শীতের কাপড়ের দোকান শ্রীমঙ্গলে স্কুল পড়ুয়া ছাত্রকে বলাৎকারের চেষ্টা: মামলা নেয় নি শ্রীমঙ্গল থানার ওসি ! ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও মুক্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন বাসাইল উপজেলার বাথুলী সাদী হাট-বাজার প্রকল্পে চারতলা ভিত ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেন

কম মাত্রার স্টেরয়েড ডেক্সামেথাসোন করোনায় সুস্পষ্ট প্রমানিত প্রথম ওষুধ জাতিসঙ্ঘ বিশেষজ্ঞ দল

  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ জুন, ২০২০
  • ১৯৬ বার পড়া হয়েছে

রিপোর্ট ঃ আসমাউল হুসনা

জাতিসঙ্ঘ বিশেসজ্ঞ দের মতে ডেক্সামেথাসোন নামে কম মাত্রার স্টেরয়েডকরোনা চিকিতসায় কাজ করেছে , এটি প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের ক্ষেত্রে জীবন রক্ষাকারী প্রথম ওষুধ বলে মানছেন তারা যা ব্যাবহার করে ভেন্টিলেটরে থাকা রোগীদের মৃত্যু ঝুকি প্রায় এক তৃতীয়াংশ কএবঙ্ অ ক্সিজেন ব্যাবহার কারী রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি প্রায় এক পঞ্চমাংশ কমিয়ে আনা সম্ভব বলে মন্তব্য তাদের।
গবেষক দলের মতে করোনা ভাইরাসে প্রতি ২০ জনে ১৯ জনই সুস্থ হয়ে ওঠে। খুব কম রোগীর কৃত্রিম শ্বাস প্রশ্বাস চালানোর দরকার হয় যেখানে উচ্চ ঝুঁকির এই রোগীদের ডেক্সিমেথাসোন ভালো কাজ করবে বলে মনে করা হচ্ছে। বৃতেন অক্সফোর্ড বিশবিদ্যালয়ের
গবেষক গণ তাদের তত্তাবধানে প্রায় দুই হাজার হাসপাতালে ডেক্সামেথাসোন দিয়ে রোগীদের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখেন যাদের ওপর এই ডেক্সামেথাসোন ব্যাবহার করা হইয়েছিল ভেন্টিলেটরে ছিল এমন রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি ৪০ থেকে কমে ২৮ নেমে এসেছে ও অক্সিজেনে থাকা রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি কমে ২৫ থেকে ২০ এ চলে আসে। গবেষণা প্রধান মারটিন ল্যানড্রে এই ফলাফলের ভিত্তিতে বলেন দেখা গেছে ভেন্টিলেটরে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে এমন আটজনের মধ্যে এক জনের প্রাণ এই ওষুধে বাঁচানো সম্ভব।“ অনুসনধান দলের প্রধান অধ্যাপক পিটার হারবির ম তে এখনো পরজন্ত এটাই একমাত্র ওষুধ যা মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে পারে বলে দেখা যাচ্ছে এবং এই ওষুধ প্রয়োগে মৃত্যু ঝুঁকি উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে’’- এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি। তবে যাদের খুব হালকা উপসর্গ তাদের ক্ষেত্রে এটা কাজ করবেনা –তাই এঈ ওষুধ বাড়িতে কিনে জমা করতে নিষেধ করেছেন তারা।
এই ওষুধের সুস্পষ্ট সুস্পষ্ট সফল আছে। এই চিকিৎসায় ডেক্সামেথাসোন দশদিনের জ্ন্য দিতে হবে যার দাম পড়বে মাত্র পাঁচ পাউন্ড এবং বিশ্বের সব দেশেই তা পাওয়া যায়।“ল্যানড্রের মতে এখনি প্রয়োজন হলে রোগীদের এই ওষুধ হাসপাতালে শুরু করা উচিত এবং বৃটেনে মহামারী কালে যদি এই ওষুধ আগেই শুরু করা যেত তবে পাঁচ হাজার রোগীর প্রাণ বাঁচানো যেত বলে মনে করছেন গবেষক দল।
ডেক্সামেথাসোন এর আগেই আরো একটি ওষুধ রেমডিসিভির করোনা চিকিতসায় ব্যাবহার হয়ে আসছে যা এন্টিভাইরাল চিকিৎসায় ব্যবহার হয়। সেটি করোনা চিকিৎসায় ব্যাবহৃত হলেও আরেক ওষুধ হাইড্রোক্লোরোকুইন হার্টের ও অনান্য জীবন নাশক প্রতিক্রিইয়া দেখা দেয়ায় তা বাতিল করে দেয়া হয়। সুত্র বিবিসি .কম

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৪৭৫,৮৭৯
সুস্থ
৩৯৩,৪০৮
মৃত্যু
৬,৮০৭
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
১,৮৮৮
সুস্থ
২,৪৫৭
মৃত্যু
৩৫
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব