1. admin@agrajatrabd.news : admin :
বিজ্ঞপ্তিঃ-
জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে যোগাযোগ ০১৩ ০৯ ৩২ ৩২ ৮১
শিরোনাম
ইতিবাচক কাজে লালমোহন থানার ওসি মাকসুদুর রহমান মুরাদ সিলেটে র‌্যাব-৯ এর বিশেষ অভিযানে ভুয়া পাসপোর্ট ও ভিসাধারী দুই নাইজেরিয়ান আটক পাথরঘাটায় ডিবির হাতে ৯ ডাকাত আটক সাভারে র‍্যাবের অভিযানে চোলাই মদ ও মদ তৈরির সরঞ্জামসহ আটক-১ মাদক ব্যবসায়ী সখীপুরে সুইসাইড নোটে ক্ষমা চেয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা নাটোরের সিংড়ায় ইউ,পি সদস্য আরিফের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ’র অভিযোগ উঠেছে সাভারে র‍্যাবের অভিযানে চোলাই মদ ও মদ তৈরির সরঞ্জামসহ আটক-১ মাদকব্যবসায়ী রংপুর নগরীতে কোচিং সেন্টারে অভিযান,জরিমানা ৬০ হাজার টাকা রংপুরে ৩১৯৮ পিস ইয়াবাসহ পুলিশের এএসআই গ্রেপ্তার রাজাপুরে পানিতে ডুবে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

নিজে বরিশালের সবচে বড় হাসপাতালের মালিক; হাসপাতালের সিট মিললো না মৃত্যুকালে

  • Update Time : মঙ্গলবার, ৯ জুন, ২০২০
  • ২৩৭ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার –

দক্ষিণাঞ্চলের সর্ববৃহৎ এবং সর্বাধুনিক হাসপাতালের মালিক, গরিবের ডাক্তার হিসেবে পরিচিত ডা. আনোয়ার ঢাকায় তিন-তিনটি হাসপাতালে ভর্তি হতে না পেরে মারা গেছেন। সোমবার তাকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকায় প্রথমে স্কয়ার, তারপর এ্যাপোলো, এবং আরো একটি হাসপাতালে ভর্তির চেষ্টা করেও বিফল হন তার নিকটাত্মীয়রা। শেষ পর্যন্ত বাড্ডার একটি হাসপাতালে রাতে ভর্তি করা হলেও মধ্যরাতে মারা যান বরিশালের প্রিয় এই মানুষটি। মাটির মানুষ হিসেবে পরিচিত ডা. আনোয়ার শল্যচিকিৎসক হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেন। তার বাড়ি ঝালকাঠির মানপাশায়। এক ছেলে এক মেয়ে, স্ত্রী ও এক ভাই নিয়ে যৌথ পরিবার। শিক্ষানুরাগী হিসেবে তার সুনাম চারদিকে। নিজ বাড়ির সামনের স্কুলে ৫০ লাখ টাকা খরচ করে ভবন করেছেন, বরিশালেও একটি স্কুলের সভাপতি।

২টি স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার প্রকাশক। নিজের জমানো সব অর্থ আর ব্যাংক ঋণ দিয়ে বরিশালে নির্মাণ করেন ১১ তলাবিশিষ্ট রাহাত আনোয়ার হাসপাতাল। প্রায় একাই এত বড় হাসপাতালটি চালু রেখেছেন। শল্যচিকিৎসক হিসেবে দক্ষ হওয়ায় রোগীর কমতি ছিল না। ফিস নিয়ে আজ পর্যন্ত কোনো রোগীর কোনো অনুযোগ ছিল না। বিএনপি নেতা এডভোকেট আলী হায়দার বাবুল মাত্র ২ দিন আগে ফেস বুকে লিখেছিলেন, ডা. আনোয়ারের অক্লান্ত সেবায় তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরতে পেরেছিলেন।
করোনা মহামারিতে বরিশালের সব বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা জীবন বাঁচাতে যখন ঘরে উঠেছেন, ডা. আনোয়ার তখন তার হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছিলেন। বেশ কয়েকজন করোনা রোগী তথ্য গোপন করে তার হাসপাতালে ভর্তি হলে অবস্থার অবনতি ঘটে। প্রথমে ২ জন স্টাফ আক্রান্ত হন করোনায়। তারপর নিজে। রোববার রাতেও তিনি ৭/৮টি অপারেশন করান। সোমবার সকালে অসুস্থ হয়ে পড়েন। দুপুরের পর তাকে অক্সিজেন দেয়া হয়। কিন্তু অবস্থার দ্রুত অবনতি হলে ঢাকা থেকে এয়ার এম্বুলেন্স আনা হয়। বিকাল সোয়া ৫টায় তাকে নিয়ে উড়াল দেয় এয়ার এম্বুলেন্স। প্রথমে যাওয়া হয় স্কয়ার হাসপাতালে। সেখান থেকে জানিয়ে দেয়া হয় সিট নেই। এরপর এ্যাপোলো হাসপাতাল। একই ঘটনা ঘটলো। আরও একটি হাসপাতাল ঘুরে উপায় না পেয়ে তাকে বাড্ডার একটি হাসপাতালে বাধ্য হয়ে ভর্তি করানো হলো। হাজারো মানুষের জীবন বাঁচানো ডা. আনোয়ার প্রায় বিনা চিকিৎসায় রাত আড়াইটায় মারা যান। ডা. আনোয়ারের মৃত্যু সংবাদে পুরো বরিশাল যেন স্তব্ধ হয়ে পড়ে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় ওঠে। সাংবাদিকদের কলমও স্থবির হয়ে পড়ে। প্রশাসন থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ, সবাই হতবাক হয়ে পড়েন। এভাবে সময় না দিয়ে তিনি চলে গেলেন বরিশালের স্বনামখ্যাত দৈনিক দক্ষিণাঞ্চল পত্রিকার প্রকাশক তিনি। পরে তিনি বরিশালের আজকাল নামের পত্রিকাটি কিনে নেন। সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরণ এবং সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর প্রিয়ভাজন ছিলেন ডা. আনোয়ার। দাতা হিসেবেও তার সুখ্যাতি ছিল। পুত্র ও কন্যা দুজনেই মেডিকেল স্টুডেন্ট। গতকাল দুপুরে তার নিজবাড়ি ঝালকাঠির মানপাশায় তাকে দাফন করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৪৪৮,৪১৩
সুস্থ
৩৬২,৬৯০
মৃত্যু
৬,৩৮৮
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
২,৪১৯
সুস্থ
২,১৮৩
মৃত্যু
২৮
স্পন্সর: একতা হোস্ট
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব